আলাউদ্দিন আলীর জীবনী

না ফেরার দেশে চলে গেলেন উপমহাদেশের কিংবদন্তি সুরস্রষ্টা ও সংগীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী। ঢাকাই ছলচ্চিত্রের বহু হৃদয়কাড়া গানের গীতিকার, সুরকার, সঙ্গীত পরিচালক আলাউদ্দিন গত ৯ই আগস্ট রোববার বিকেল ৫টা ৫০ মিনিটে মারা গেছেন।

২০১৫ সালের জুলাই মাসে আলাউদ্দিন আলীর ফুসফুসে একটি টিউমার ধরা পড়ে। পরে তা ক্যান্সারে মোড় নেয়। এরপর থেকে অন্যান্য শারীরিক সমস্যার পাশাপাশি তার ক্যানসারের চিকিৎসা চলছিল। অতঃপর গতকাল রোববার সন্ধ্যায় ইউনিভার্সেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

গুণী এই মানুষের জন্ম ১৯৫২ সালের ২৪ ডিসেম্বর মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামে। খুব ছোটবেলা থেকে সঙ্গীত জগতের সাথে তার যোগাযোগ ছিল পরিবারে সঙ্গীতচর্চার কারণে। ছোটবেলাতেই বেহালা বাজানোর জন্য অল পাকিস্তান চিলড্রেনস প্রতিযোগিতায় পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। ১৯৬৮ সালে বাদ্যযন্ত্রশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রজগতে পা রাখেন তিনি। শুরুটা শহীদ আলতাফ মাহমুদের সহযোগী হিসেবে, পরে প্রখ্যাত সুরকার আনোয়ার পারভেজের সঙ্গে কাজ করেন দীর্ঘদিন।

লোকজ ও ধ্রুপদি গানের সংমিশ্রণে গড়ে ওঠা আলাউদ্দীন আলীর সুরের নিজস্ব ধরন বাংলা সংগীতে এক আলাদা ঢং হয়ে উঠেছে প্রায় চার দশক ধরে। বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের বহু স্বনামধন্য শিল্পী তাঁর সুরে গান করে নিজেদের সমৃদ্ধ করেছেন।

চলচ্চিত্রের সংগীতে বেহালা বাজাতে গিয়ে তার সংগীত পরিচালনার আগ্রহ তৈরি হয়। অতঃপর সত্তরের দশক থেকে সংগীত পরিচালনায় পরিচিত নাম হয়ে ওঠেন আলাউদ্দিন আলী। ১৯৭২ সালে দেশাত্মবোধক গান ‘ও আমার বাংলা মা’ গানের মাধ্যমে জীবনে প্রথম সংগীত পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ ঘটে তার। ১৯৭৫ সালে প্রথম সংগীত পরিচালনা করেন সন্ধিক্ষণ চলচ্চিত্রে। এরপর ১৯৭৭ সনে ‘গোলাপি এখন ট্রেনে আর ‘ফকির মজনু শাহ’ চলচ্চিত্রে সংগীত পরিচালনা করেন আলাউদ্দিন আলী। চলচ্চিত্র, বেতার, টেলিভিশন মিলে প্রায় হাজার পাঁচেক গান তৈরি করেছেন তিনি। তিনি একই সাথে সুরকার, গীতিকার, সঙ্গীত পরিচালক ছিলেন। আলাউদ্দিন আলী তাঁর গানের জন্য মোট আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর সুরারোপিত গানের মধ্যে ‘একবার যদি কেউ ভালোবাসত’, ‘যে ছিল দৃষ্টির সীমানায়’, ‘ভালোবাসা যত বড় জীবন তত বড় নয়’, ‘এই দুনিয়া এখন তো আর সেই দুনিয়া নাই’, ‘সূর্যোদয়ে তুমি সূর্যাস্তেও তুমি ও আমার বাংলাদেশ’, ‘এমনও তো প্রেম হয়, চোখের জলে কথা কয়’, ‘হয় যদি বদনাম হোক আরও’, ‘প্রথম বাংলাদেশ, আমার শেষ বাংলাদেশ’ সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গান রয়েছে।

গুণী এই সংগীত সুরস্রষ্টা মৃত্যুতে বাংলাদেশ হারালো এক উজ্জ্বল নক্ষত্রকে। বাংলার সংগীতের ইতিহাসে চির অমর হয়ে থাকবেন আলাউদ্দিন আলী। তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করি আমরা সবাই।

Related Post

1 Comment

Leave a Comment